বাবা দিবসে পিতা খোরশেদ আলমের স্থান কুমিল্লার ডাস্টবিনে

বাবা দিবসে পিতা খোরশেদ আলমের স্থান কুমিল্লার ডাস্টবিনে

প্রকাশিত: ১০:২২ অপরাহ্ণ, জুন ২২, ২০২০

মোঃ সফিকুল ইসলাম শরীফ, কুমিল্লা(জেলা) প্রতিনিধিঃ

গত শনিবার ৬০ বছর বয়সী এক বাবাকে ডাস্টবিনের পাশে থেকে উদ্ধার করেন পুলিশ। স্থানীয়দের মাধ্যমে জাতীয় জরুরি সেবা ‘ ৯৯৯’ এ কল দিলে শনিবার রাতে সাড়ে ১০টার সময় পুলিয় নগরীর বাদুড়তলাস্থত নবাব ফয়জুন্নেছা সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের বিপরিতে একটি ডাস্টবিনের পাশ থকে খোরশেদ আলম(৬০) নামে বৃদ্ধকে উদ্ধার করে পুলিশ।

খোরশেদ আলম পুলিশকে জানান অসুস্থ অবস্থায় তার সন্তানরাই তাকে এই ডাস্টবিনের কাছে ফেলে চলে যায়। এদিকে অসুস্থ অবস্থায় পুলিশ তাকে উদ্ধার করার পর হাসপাতালে ভর্তির কিছুক্ষণ পরই খোরশেদ আলম মারা যান। মারা যাওয়ার পর খোরশেদ আলমের মৃত দেহ নিয়ে দীর্ঘ সময় অপেক্ষার পরও কোনো সন্তান তাকে নিতে না এলে পুলিশ তার মরদেহকে আঞ্জুমানে হস্তান্তর করে।

অবশেষে সন্তানদের ফেলে যাওয়া এই পিতার লাশ আঞ্জুমানে মফিদুল ইসলাম একজন বেওয়ারিশ লাশ হিসেবে রোববার বিকেলে দাফন সম্পন্ন করেন । এ বিষয়ে কোতোয়ালী মডেল থানার পুলিশের এস আই সাহাব উদ্দিন জানান, জরুরি সেবা নম্বর ৯৯৯ এ কল পেয়ে জরুরি ভিত্তিতে ঘটনাস্থলে পৌছে দেখি ডাস্টবিনের পাশে পড়ে চিৎকার করছে এই বৃদ্ধ লোকটি। শ্বাসকষ্টের কারণে কথা বলতে পারছিলো ভালোভাবে।

পরে তাকে এ্যাম্বুলেন্সে করে নিয়ে যাই। সেখানেই চিকিৎসা চলাকালীন অবস্থায় মৃত্যু হয় খোরশেদ আলমের। এস আই সাহাব উদ্দিন আরও জানান, ডাস্টবিনের পাশ থেকে তাকে এ্যাম্বুল্যান্সে করে নিয়ে যাওয়ার পথে বৃদ্ধ লোকটি জানান, তার সন্তানরাই তাকে ডাস্টবিনের পাশে ফেলে চলে যান। বৃদ্ধের গ্রামের বাড়ি নোয়াখালী জেলায় বলে জানিয়ে গেলেও অতিরিক্ত শ্বাসকষ্টের কারণে কথা বলতে কষ্ট হওয়ায় তার পুরো ঠিকানা নিশ্চত হওয়া যায়নি।

কুমিল্লা কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি আনোয়ারুল হক জানান, ঐ বৃদ্ধ তার গ্রামের বাড়ি নোয়াখালী জেলায় বল্লেও আর কোনো বিস্তারি তথ্য না পাওয়ায় রোববার বিকেলে মরদেহ আঞ্জুমানে মফিদুল ইসলামের মাধ্যমে বেওয়ারিশ হিসেবে দাফন করার জন্য পাঠানো হয়েছে। রোববার সন্ধ্যায় দাফনের বিষয়টি নিশ্চিত করেন আঞ্জুমানে মফিদুল ইসলাম কুমিল্লা শাখার সহকারি পরিচালক সাজ্জাদ হোসেন। তিনি জানান রোববার বিকেলে পুলিশ ওই ব্যক্তির মরদেহ আমাদের কাছে পাঠায়। বেওয়ারিশ হিসেবে দাফন করা হয়েছে