দুর্দিনে কক্সবাজারে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীর জন্য সাবেক ছাত্রনেতা প্রশান্ত ভূষণ বড়ুয়ার ঈদ উপহার

প্রকাশিত: ১১:৪৩ অপরাহ্ণ, মে ২৭, ২০২০

নিজস্ব প্রতিবেদক:

বৈশ্বিক মহামারী করোনাভাইরাস এ আক্রান্ত বাংলাদেশ। করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের পাশাপাশি কাজ করছে বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক সংগঠন। তারই অংশ হিসেবে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ এ দুর্যোগের শুরু থেকেই নানামুখী সেবামূলক কর্মকাণ্ড চালিয়ে আসছে।

এই ক্রান্তিকালে দেশের জনগণের সহযোগী হয়ে মাঠে রয়েছেন তারা। কিন্তু এই সংকটে তারাও আছে বিভিন্ন সমস্যায়। পবিত্র ঈদুল ফিতরের আনন্দটুকু যেন তাদের মুখে অটুট থাকে সেই লক্ষ্যে কক্সবাজারের বিভিন্ন উপজেলা, পৌরসভা, ইউনিয়ন এবং কলেজ ভিত্তিক প্রায় ৭০০ জন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীর পরিবার এবং ৭০ জন বিভিন্ন সাবেক নেতৃবৃন্দদের মাঝে ঈদের উপহার সামগ্রী প্রদান করেন কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি, আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন বির্তক বিচারক, এক -এগারোর দিনগুলোতে নেত্রীর মুক্তির জন্য বহির্বিশ্বে “ভয়েস ফর শেখ হাসিনা” শীর্ষক প্রচারনার উদ্যোক্তা, এককভাবে সর্বোচ্চ সংখ্যক বঙ্গবন্ধু “অসমাপ্ত আত্মজীবনী ” বিতরণকারী রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব এডভোকেট প্রশান্ত ভূষণ বড়ুয়া। প্রশান্ত ভূষণ বড়ুয়ার উপহার বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাবেক ও বর্তমান নেতা-কর্মীদের মাঝে পৌঁছিয়ে দিয়েছেন কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের যুগ্ন সাধারণ-সম্পাদক অনিক বড়ুয়া।

এছাড়া করোনায় কর্মহীন মানুষের মাঝে তাঁর খাদ্য সামগ্রীর সহায়তা কার্যক্রমও অব্যাহত রয়েছে। তাঁর উদ্যোগে সৃষ্ট বিপন্ন মানুষের জন্য ” ফুড ব্যাংক” এর কার্যক্রম ইতিমধ্যে প্রশংসা অর্জন করেছে।

এ সময় প্রশান্ত ভূষণ বড়ুয়ার সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, ” জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শকে বুকে ধারণ করে, দেশরত্ন শেখ হাসিনার দিকনির্দেশনায় বাংলাদেশ ছাত্রলীগ রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক অঙ্গনে সকল সময় ইতিবাচক ভূমিকা পালন করে আসছে। আমিও ছাত্রলীগের একজন সাবেক। তাই সংগঠনের নেতাকর্মীদের পাশে থাকা, সহযোগিতা করা আমার নৈতিক দায়িত্ব। সংকটময় এ পরিস্থিতিতে আমাদের সকলের ঐক্যবদ্ধ সহযোগীতা দরকার বলে জানান।”

এ বিষয়ে কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মোর্শেদ হোসাইন তানিম বলেন ” শ্রদ্ধেয় দাদা, প্রশান্ত ভূষণ বড়ুয়া একজন কর্মীবান্ধব পরিচ্ছন্ন রাজনীতিবিদ। উনার প্রতিটি কর্মকাণ্ড অনেক বেশি অনুকরণীয় ও দৃষ্টান্তমূলক। যেখানে এই সংকটময় সময়ে সিনিয়র নেতৃবৃন্দ ছাত্রলীগের কর্মীদের প্রতি নিরব সেখানে প্রশান্ত দাদা তাঁর ব্যক্তিগত উদ্যোগে সাধ্যানুযায়ী ছাত্রলীগের কর্মীদের পরিবারের পাশে থাকায় এই মহতী কর্মোদ্যোগের জন্য ধন্যবাদ জানান এবং এর মাধ্যমে সকল সিনিয়র নেতৃবৃন্দ তার কর্মীর আবেগকে যথাযথ মূল্যায়ন করতে শিখবেন বলেও জানান।”

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক উপকারভোগী একজন ছাত্রনেতা জানান, বৈশ্বিক মহামারী মধ্যে প্রশান্ত দাদার উপহার পেয়ে আমি সত্যিই আনন্দিত দাদার সুস্বাস্থ্য ও সুস্থতা কামনা করি।