খুশির ঈদের হাসি কেড়ে নিল করোনা, ভাসছে মলিন চেহারায় !

প্রকাশিত: ৫:৪৫ অপরাহ্ণ, মে ২৯, ২০২০

মফিজুল ইসলাম মফিঃ

ঈদের কদিন পরেও সবখানে নীরবতা আর নিস্তব্দতা। কোথাও আমেজ নেই। আত্বীয় স্বজনদের বাড়ীতেও আসা যাওয়া থেকে বিরত রয়েছে মানুষ। কোলাহল আর হৈ চৈ নেই। যেন মৃত মানুষের বসতঘর।

অন্য বছরের ন্যায় এবছরের ঈদ একটু ব্যতিক্রম সামাজিক দুরত্বের বিষয়টি খেয়াল রেখে আর মুখে মাস্ক ব্যবহার করেও নামাজ আদায় করতে হলো।
সদরের বৃহত্তর ঈদগাঁওর পাড়া মহল্লাজুড়ে ছোট ছোট সোনামনিসহ সববয়সী লোকজন কাটাত ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনামুখর পরিবেশে ঈদের অনাবিল আনন্দ। হাসিখুশিতে মাখা থাকতো তাদের মনমানসিকতা। ঘুরে বেড়াত বন্ধুমহলের বাড়ীতে। কত মজাদার আড্ডা চলত সবখানে।
এ বছর তারই চিত্র কিন্তু উল্টোতে পরিণত হল।

মানুষের মাঝে হাসি নেই, চিন্তা আর আতংকের চাপ ভাসছে মুখে। খুশি শব্দটি অনায়াসে হারিয়ে গেল অজানা পথে। তার উপর আবার দীর্ঘকাল ঘরবন্দিতে কর্মহীন হয়ে বসে আসে নিরবভাবে।
তবু করোনা সংক্রমন ঠেকাতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে, সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে আর,মুখে মাস্ক দিয়ে ঈদ পালন করেছে গৃহবন্দিরা। এবার ঈদে নেই বাঁধভাঙ্গা উচ্ছাসসহ ঘন আমেজ। শুধু ঘরেই পরিবার-পরিজন নিয়ে ঈদ কাটাল মানুষ।
চেহারায় মলিনতা,ঠাট্রা হাসির পরিবর্তে বেদনার চাপ। নীরবে দু:খ বেদনা সয়ে যাচ্ছেন অনেকে।
যে যার যার অবস্থান থেকে ঈদ উদযাপন করে। ঈদের অনাবিল উৎসব আর সবকিছু কেড়ে নিল চলমান বৈশ্বিক “করোনা”।

স্থানীয় কজন রিক্সা চালক জানান, এবছরের ঈদে নেই কোন আনন্দ। ঘর থেকে বের হতে পারছিনা। পরিবার পরিজন নিয়ে এতো কষ্ট মেনে নেওয়া যায়না।