করোনায় মৃত্যুর কাফেলা দীর্ঘ হচ্ছে কুমিল্লায়

করোনায় মৃত্যুর কাফেলা দীর্ঘ হচ্ছে কুমিল্লায়

প্রকাশিত: ১২:০১ অপরাহ্ণ, জুন ১৬, ২০২০

মো: সফিকুল ইসলাম শরীফ

কুমিল্লা (মুরাদনগর) প্রতিনিধিঃ

যতই দিন যাচ্ছে ততোই যেন দীর্ঘ হচ্ছে কুমিল্লায় করোনায় মৃতের সংখ্যা। লক্ষণ কিংবা সংক্রমন নিয়ে প্রতিদিনই দীর্ঘ হচ্ছে এই মিছিল। কুমিল্লা জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের হিসাবে ৫৪ জনের মৃত্যুর সংখ্যা উল্লেখ থাকলেও তার সংখ্যা সংক্রমন ও উপসর্গের আলোকে গিয়ে শতের কোঠায় গিয়ে দাঁড়িয়েছে।

করোনা আক্রান্ত হয়ে গতকালও জেলায় প্রাণহানী ঘটেছে ১০ জনের। এর মধ্যে কুমিল্লা মেডিকেলেই মারা গেছেন ৭জন। এ নিয়ে জেলায় মোট ৩৩ জনের প্রাণ গেল মাত্র ৩দিনে।

এদিকে কুমিল্লায় আরো ৫১জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে গতকাল। এতে দুই হাজারের কোটা পেরিয়ে গেল কুমিল্লায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। শুধুমাত্র এক সপ্তাহে ৫০০ ব্যাক্তি করোনা আক্রান্ত হয়েছে।

যার ফলে কুমিল্লাতে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা গিয়ে দাঁড়িয়েছে ২০০৮ জনে।এদের মধ্যে সুস্থ্য হয়েছেন ৪৬৯জন।

এরই মধ্যে গতকাল করোনা আক্রান্ত হয়ে প্রাণ হারিয়েছেন কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও কুমিল্লা অজিত গুহ মহাবিদ্যালয়ের সাবেক অধ্যক্ষ বীর মুক্তিযোদ্ধা আলকাছুর রহমান।

উপজেলা যুবলীগের সাবেক আহবায়ক ও বরুড়া শিলমুড়ি ইউনিয়নে পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান বিল্লাল হোসেন মজুমদারও গতকাল মৃত্যুবরণ করেন এই মহামারি করোনায়।

তারা দুজনই কুমিল্লা মেজিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। চিকিৎসা চলাকালীন অবস্থায় সোমবার বিকালে মারা যান বিল্লাল হোসেন এবং সন্ধ্যায় মারা যান আলকাসুর রহমান।

এদিকে করোনা উপসর্গ নিয়ে কুমিল্লা জেলায় আরো ৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ৫ জন এবং বাকি তিন জন তাদের নিজ বাড়িতে মৃত্যু বরণ করেন।

কুমেকে করোনায় আক্রান্ত হয়ে একজন এবং করোনা উপসর্গ নিয়ে ৫ জনের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন হাসপাতালের সহকারি পরিচালক ডা. সাজেদা খাতুন।

তিনি জানান, গত ২৪ঘন্টায়(রোববার-সোমবার) কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে করোনার লক্ষণ ও উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন ৫ জন। যাদের মধ্যে তিনজন আইসোলেশনে মারা গেছেন আর বাকি দুইজন মারা গেছেন আইসিইউতে।

অপর দিকে আলম নামের এক পল্লী চিকিৎসক কুমিল্লার ব্রাহ্মনপাড়ায় মারা গেছেন। তার বাড়ি উপজেলার নাগাইশ গ্রামে। একই দিন বিকালবেলা নরুল ইসলাম তালুকদার নামে এক বিখ্যাত ব্যাক্তি মৃত্যুবরণ করেন জেলার বরুড়ায়। মৃত্যুবরণকারী এই দুজন ব্যক্তিই ক’দিন যাবৎ জ্বর ও শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন বলে জানা গেছে।

এ নিয়ে করোনা লক্ষণ ও উপসর্গ নিয়ে জেলায় মোট মারা গেল ৩৩ জন। এর আগে গত রবিবার ১০ জন, শনিবার ১৩ জন করোনা লক্ষণ ও উপসর্গ নিয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন । অর্থাৎ কুমিল্লায় গেল দিনে গড়ে ১১জন ব্যাক্তি মারা যাচ্ছে কোভিড’১৯ এর লক্ষণ ও উপসর্গ নিয়ে।

দীর্ঘ থেকে দীর্ঘতর করছে কুমিল্লায় করোনায় মৃত্যুর মিছিলকে। এদিকে তাৎক্ষনিক আইসিইউ সুবিধা না পাওয়ার দরুন কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের একটি ভবনে স্থাপিত কোভিড’১৯ হাসপাতালে একজন রোগীর মৃত্যু ঘটার অভিযোগ পাওয়া গেছে।